স্ট্যাম্প হওয়া ওয়ার্ক ভিসা বাতিলের সিদ্ধান্ত নিয়েছে সৌদি সরকার

সৌদি আরবে হামলা চালানোর

 

 

করোনা ভাইরাসের কারণে মধ্যপ্রাচ্যের দেশ সৌদি আরবের আন্তর্জাতিক বাণিজ্য  বন্ধ থাকায় তাদের অর্থনীতি প্রায় স্থবির হয়ে পড়েছে।
এ পরিস্থিতিতে মার্চের ১৮ তারিখ থেকে পাসপোর্টে স্ট্যাম্প হওয়া প্রাইভেট খাতের সব ধরনের ওয়ার্ক ভিসা রিজেক্ট করে এর ফি ফেরত দেয়া হবে বলে ঘোষণা দিয়েছে সৌদি সরকার। আর এতেই বাংলাদেশ থেকে প্রায় লক্ষাধিক কর্মীর সৌদিতে যাওয়া অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে।
যদিও দেশটিতে বর্তমানে যারা কর্মরত আছেন তাদের বিষয়ে এখনও কিছু জানায়নি সৌদি সরকার। এ কারণে চলমান পরিস্থিতি এবং ভবিষ্যৎ নিয়ে শঙ্কা দেখা দিয়েছে প্রবাসীদের মনে।
সৌদি আরব শ্রমিক নেতা বাবুল দাস বলেন, পাসপোর্টে স্ট্যাম্প হওয়া প্রাইভেট খাতের সব ধরনের ওয়ার্ক ভিসার জন্য তারা সামান্য কিছু টাকা প্রদান করবেন এবং ভিসা বাতিল করবেন।
সৌদিতে অভিবাসন ও জনশক্তি রপ্তানির সঙ্গে সংশ্লিষ্ট অভিবাসন বিশেষজ্ঞ ডা. আরিফুর রহমান এর মতে দেশটিতে থাকা ২২ লক্ষাধিক বাংলাদেশি কর্মীর কিছু অংশ ফেরত গেলেও বাংলাদেশের রেমিটেন্স খাত ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। তবে করোনায় দেশটির অর্থনীতি কতটুকু ক্ষতিগ্রস্ত হলো, তার ওপরই সব কিছু নির্ভর করবে।
বায়রা বলছে, নতুন করে সৌদিতে যাওয়ার জন্য প্রায় এক লাখ বাংলাদেশির ভিসা প্রস্তুত রয়েছে। তবে বিমান চলাচল বন্ধ থাকায় তাদের যাত্রা নিয়ে অনিশ্চয়তা দেখা দিয়েছে। খবর সময় সংবাদের।