সৌদি সরকার হজযাত্রীর কোটা বাড়াতে অনিচ্ছুক

191

কর্ণফুলী ডেস্কঃ চলতি বছর হজযাত্রীর কোটা বৃদ্ধি করতে বাংলাদেশের সুপারিশ নাকচ করে দিয়েছে সৌদি সরকার।

বাংলাদেশের ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয় মঙ্গলবার এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানিয়েছে।

এবার সৌদি আরবের নির্ধারিত কোটা এক লাখ এক হাজার ৭৫৮ জনের অতিরিক্ত ২৫ হাজার হজযাত্রীর কোটা বৃদ্ধির সুপারিশ করেছিল বাংলাদেশ। এবার কোটার তুলনায় হজে যেতে আবেদনকারীর সংখ্যা ৩০ হাজারের মত বেশি।

বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয় তবু কোটা বৃদ্ধির চেষ্টা অব্যাহত রেখেছে এবং সৌদি সরকার তা বর্ধিত করলে রেডিও, টেলিভিশন ও অন্যান্য গণমাধ্যমে সংশ্লিষ্ট সবার জ্ঞাতার্থে প্রচার করা হবে।

একবার নাকচ হওয়ার পর সৌদি সরকারের কোটা বৃদ্ধির আশা সুদূর পরাহত বলেও এতে মন্তব্য করা হয়।

ধর্ম মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, নির্ধারিত কোটার মধ্যে যে সব এজেন্ট যে পরিমাণ হজযাত্রী পাঠানোর যোগ্য বিবেচিত হয়েছেন, তাদেরকে আগামী ১৮ জুনের মধ্যে সৌদি আরবে ব্যাংক হিসাব খুলতে বলা হয়েছে। একই সঙ্গে টাকা জমাদান, বাড়িভাড়া চুক্তি সম্পাদন ও সৌদি মোয়াল্লেমদের সঙ্গে চুক্তিসহ যাবতীয় কাজ সম্পন্ন করার জন্য অনুরোধ জানানো হয়েছে।

নির্ধারিত তারিখের মধ্যে কাজগুলো সম্পন্ন করতে ব্যর্থ হলে হজ এজেন্টরা তাদের হজযাত্রী পাঠাতে ব্যর্থ হবেন জানিয়ে বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, এমন অবহেলার জন্য সংশ্লিষ্ট হজ এজেন্টদের বিরুদ্ধে আইনগত শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।