সুশান্ত সিং রাজপুত বিতর্কের মূল নিশানায় করণ জোহর

সুশান্ত মৃত্যু তদন্তে নতুন মোড়, চার্জশিটে অভিযুক্ত ৩৩ জন

 

সুশান্ত সিং রাজপুত বিতর্কের মূল নিশানায় করণ জোহর । সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর পরই বলিউডে জোরদার হয়েছে নেপোটিজম বিতর্ক।

সোশ্যাল মিডিয়ায় নানাভাবে কটাক্ষ করা হয়েছে করণকে। উঠেছে তাঁর সিনেমা বয়কটের অভিযোগও।

সম্প্রতি সুশান্তের এক ফ্যান করণ জোহরের কফি উইথ করণ দেখছিলেন। সেখানেই তিনি খেয়াল করেন করণ কিভাবে সুশান্তকে অপমান করছেন।

এমনকী সেই অপমানের ভাষাতেও ছিল কুরুচির পরিচয়। এরপরই সুশান্তের সেই ভক্ত সোশ্যাল মিডিয়ায় লেখেন, ‘আরও জোরালো প্রতিবাদ হোক করণ জোহরের বিরুদ্ধে।

সুশান্ত সিং রাজপুত বিতর্কের সবরকম ভাবে করণকে বয়কট করা হোক’। বেশ কিছুদিন আগেই একটি অনলাইন পিটিশনে সই সংগ্রহের কাজ চলছিল।

সেই পিটিশনে সলমান খান, করণ জোহার এবং যশরাজ ফিল্মসকে বয়কটের দাবিতে সই করেন প্রায় ৪০ লক্ষ মানুষ।

সুশান্তের এক ভক্ত রণদীপ সরকার লেখেন, ‘আমি কফি উইথ করণের ওই এপিসোড খুব ভালো ভাবে দেখেছি। করণ মাত্র দুবার সুশান্তের নাম নিয়েছিল।

বারবারই তাকে নানাভাবে অপমানের চেষ্টা করে এড়িয়ে যাওয়ার চেষ্টা করছিল।

অন্য একটি ভিডিও তে সুশান্তের এক সময়ের বান্ধবী কৃতি স্যাননকে করণ জিজ্ঞেস করেছিলেন, পর্দায় তাঁকে কোন হিরোর সঙ্গে দেখতে ভালো?

 

কার্তিক আরিয়ান নাকি সুশান্ত ?

একটু ইতস্তত করে কৃতি উত্তর দিয়েছিলেন দুজনেই। তবে রবতা সুশান্ত আর আমার রসায়নের জোরেই হিট হয়েছিল।

সেই উত্তর শুনে করণ ব্যঙ্গের সুরে বলেন, ও তাই নাকি? রবতায় রোম্যান্স ছিল নাকি!

আমি তো সুশান্তকে রোম্যান্স করতেই দেখিনি। করণের এহেন মন্তব্যের জেরে কৃতি তাঁর উত্তর বদল করতে বাধ্য হন।

বলেন, ঠিক আছে কার্তিককেই আমার সঙ্গে সবচেয়ে বেশি মানায়। কিন্তু কেন তুমি আমাকে এত ঘেঁটে দিচ্ছ!’

এখানেই শেষ নয়। সুশান্তকে নিয়ে মশকরা চালিয়েই গিয়েছেন করণ। সোনম কাপুরকে তিনি জিজ্ঞেস করেছিলেন, ‘সুশান্ত সিং রাজপুতকে রেটিং দাও।

হট অর নট’। তখন সোনম উত্তর দিয়েছিলেন, ‘কে সুশান্ত? আমি চিনি না। আর আমি ওর কোনও সিনেমাই দেখিনি’।

করণ পরিণীতি চোপড়াকেও এই একই প্রশ্ন করেছিলেন। ‘অর্জুন কাপুর, ‘সুশান্ত সিং রাজপুত, রণবীর সিং আর শাহিদ কাপুরের মধ্যে সহ-অভিনেতা হিসেবে কাকে পছন্দ’?

পরিণীতি চোপড়া উত্তর দিয়েছিলেন, ‘সুশান্ত বাদে সবাই হট’। এদিকে সুশান্তের মৃত্যুতে সেই পরিণীতি ট্যুইট করে লিখেছিলেন, ‘সুশ তোমাকে আমি খুব মিস করব বন্ধু’।

সুশান্তকে কফি উইথ করণে এসে চিনতেও পারেননি আলিয়া ভাট। এমনকী বলেন ‘কে সুশান্ত? আমি তো চিনি না’।

এই সব ভিডিয়ও ক্লিপিংস দেখার পর সুশান্ত ভক্ত রণদীপ সরকার বলেন, ‘আমি বলার ভাষা হারিয়েছি। তারা সুশান্তকে এতটা ঘৃণা করত?

এখন মনে হয় কঙ্গনা রানাউত সত্যি কথাই বলেছিলেন। পরিকল্পনা মাফিক ২০১৯ এর সেরা সিনেমা হিসেবে সর্বত্রই গালি বয়-কে পুরস্কার দেওয়া হয়েছে।

করণ জোহর ইচ্ছে করেই সুশান্তকে অপমান করতেন। বলিউডের অনেক নায়িকাই কিন্তু সুশান্তের সঙ্গে কাজ করেছেন’।

 

আরও খবর পড়তে ক্লিক করুন