মানবতাবিরোধী ও তার সন্তানদের নাগরিকত্ব বাতিলের বিধান প্রস্তাবিত আইনে নেই

 

মানবতাবিরোধী অপরাধে অভিযুক্ত, বিচারাধীন মামলার আসামি, আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালে দ-প্রাপ্ত, আপিল বিভাগে দ-প্রাপ্ত, আদালতের রায় কার্যকর হয়েছে, ও আরো যাদের বিচার হবে, এর মধ্যে বাংলাদেশের নাগরিকত্ব আছে এমন কোন ব্যক্তির ও তাদের উত্তরাধিকারীদের নাগরিকত্ব বাতিলের কোন বিধান বাংলাদেশ নাগরিকত্ব আইন ২০১৬ তে প্রস্তাব করা হয়নি। তাদের নাগরিকত্ব বাতিল করা হবে এমন কোন চিন্তাও সরকারের নেই। এই কথা জানিয়েছেন, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল ও আইনমন্ত্রী অ্যাডভোকেট আনিসুল হক। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেছেন, বিভিন্ন গণমাধ্যমে এসেছে যে যুদ্ধাপরাধী ও তাদের উত্তরাধিকারীদের নাগরিকত্ব বাতিল হচ্ছে। আসলে এই ধরনের কোন বিধান আমরা করছি না। খসড়ায় এমন কোন প্রস্তাব না থাকলেও এই ব্যাপারে প্রচারণা লক্ষ্য করছি। তিনি বলেন, আইনের একটি ধারা নিয়ে কেউ কেউ অপব্যাখ্যা করছে। সেটা ঠিক হচ্ছে না। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, আইনে আমরা বলেছি বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের বিরোধিতাকারী, বিরোধীদের সহায়তাকারী ও বাংলাদেশের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করেছেন এই রকম কেউ এবং তাদের উত্তারাধিকারীদের কেউ বাংলাদেশের নাগরিকত্ব পাবেন না। তবে বাংলাদেশে যারা মুক্তিযুদ্ধের বিরোধিতা করেছেন, বাংলাদেশের বিরুদ্ধে যুদ্ধে অংশ নিয়েছেন ও মানবতাবিরোধী অপরাধ করেছেন তাদের মধ্যে এই আইন হওয়ার আগে যারা নাগরিকত্ব আগে পেয়েছেন কিংবা জন্ম সূত্রে নাগরিকত্ব লাভ করেছেন তাদের বেলায় এই আইন প্রযোজ্য হবে না। যাদের নাগরিকত্ব আছে তাদের নাগরিকত্ব এই আইনের বাতিল করার কোন কথা বলা হয়নি। আমরা আগামী দিনের জন্য এটা করেছি। অতীতের ঘটনায় কেউ জড়িত থেকে এরপর যদি কেউ আগামী দিনে নাগরিকত্ব পেতে চান সেটা পাবেন না। খসড়া আইনে বলা হয়েছে, আগামী দিনে যারা বাংলাদেশের বিরুদ্ধে অবস্থান নিবেন, কোন বিরোধিতা করবেন এবং বাংলাদেশের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করবেন এই রকম কেউ পরবর্তীতে নাগরিকত্ব লাভের জন্য আবেদন করলে তাদেরকে নাগরিকত্ব দেওয়া হবে না। আগামী দিনের কথাই বোঝানো হয়েছে। যাদের নাগরিকত্ব আছে তাদের নাগরিকত্ব বাতিলের কোন বিধান আমরা করছি না। করিনি। করার চিন্তাও নেই। গোলাম আযম, আলী আহসান মুহম্মদ মুজাহিদ, কাদের মোল্লা, কামারুজ্জামান, সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরী, মীর কাশেম আলী, মাওলানা মতিউর রহমান নিজামীর সন্তানদের ও উত্তরাধিকারীদের নাগরিকত্ব বাতিলের কোন সুযোগ এই আইনে রয়েছে কিনা জানতে চাইলে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, এই ধরনের কোন সুযোগ এখানে নেই। আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেন, আমরা নাগরিকত্ব আইন তৈরি করছি। আমরা মানবতাবিরোধি অপরাধী ও তাদের উত্তারিধকারীদের নাগরিকত্ব বাতিল করছি বলে যেসব গণমাধ্যম প্রকাশ করছে সেটা তারা তাদের মতো করে করছে। এই ধরনের কোন বিধানই আমরা রাখিনি। যেটা নেই সেটা নিয়ে এমন আলোচনা করা ঠিক না। তিনি বলেন, যারা লিখেছেন তারা তাদের মতো লিখেছেন, দায়িত্ব তাদের আমরা কিছু বলতে যাবো না। আইনের ব্যাখ্যা কেউ তার মতো করে করলে হবে না। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, আমার মনে হয় যারা আইনটি নিয়ে অপব্যাখ্যা করছেন সেটা তারা না করে আইনটি হওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করলেই দেখবেন এমন কোন বিধান আইনে নেই।