ভারতে কোরবানি নিষিদ্ধ করা হয়েছে

cow

ভারতে ঈদুল আযহায় কোরবানি নিষিদ্ধ করা হয়েছে। শুধু গরুই নয়, আসন্ন কোরবানির ঈদে সব ধরণের গবাদি পশু জবাইয়ে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে হিন্দু সংখ্যাগরিষ্ঠ দেশটি।

ভারতের প্রাণী কল্যাণ বোর্ড সব রাজ্য সরকারকে চিঠি দিয়ে এ নিষেধাজ্ঞা জারির কথা জানিয়েছে। একই সঙ্গে গবাদি পশু পরিবহণের উপরে বিধিনিষেধ জারি করা হয়েছে।

পবিত্র ঈদুল আজহার সময় পশু কোরবানির ওপর ভারতীয় প্রাণী কল্যাণ বোর্ডের নিষেধাজ্ঞায় আতঙ্কের মধ্যে রয়েছেন দেশটির কোটি কোটি মুসলমান। পবিত্র হজের সাথে সংশ্লিষ্ট এ ঈদে ভারতের মুসলমানরা সাধারণত গরু বা অন্যান্য পশু কোরবানি দিয়ে থাকেন। ভারতের মুসলিমরা বেশিরভাগই উট, মহিষ ও ছাগল- ভেড়া কোরবানি দেন। কিন্তু সব ধরনের পশু জবাই ও পরিবহণে নিষেধাজ্ঞা জারি করায় আতঙ্কের মধ্যে রয়েছেন কোটি কোটি ভারতীয় মুসলমান।
ভারতীয় সংবাদ মাধ্যমের খবর, সবকটি রাজ্যে গবাদি পশু হত্যার ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে ভারতীয় প্রাণী কল্যাণ বোর্ড। রাজ্য সরকারগুলিকে কেন্দ্রীয় বোর্ডের স্পষ্ট নির্দেশ, কোথাও কুরবানির জন্য পশু নিধন করতে দেওয়া দেওয়া যাবে না। যে সব রাজ্যে গো-হত্যা রোধ আইন বলবৎ রয়েছে, সেই সব রাজ্যে গরু কুরবানিও চলবে না। কুরবানির ঈদের আগে যারা অবৈধভাবে পশু পরিবহণ করছেন এবং ঈদের দিন যারা আইন ভাঙবেন, তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য রাজ্য সরকারকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

সম্প্রতি ভারতে বিজেপি তথা অন্যান্য হিন্দুত্ববাদী সংগঠনের পক্ষ থেকে যেভাবে গরু রক্ষা কর্মসূচি নেয়া হয়েছে তাতে ভারতীয় প্রাণি কল্যাণ বোর্ডের ওই নির্দেশিকা তাৎপর্যপূর্ণ বলে মনে করা হচ্ছে। এর আগে বিজেপি সংখ্যাগরিষ্ঠ রাজ্যগুলোতে গরু জবাই নিষিদ্ধ ছিল। কিন্তু দলটির নেতৃত্বাধীন জোট ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার গঠনের পর বিভিন্ন রাজ্যে গরু জবাই নিষিদ্ধ ঘোষণা আসতে থাকে। গত বছর মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ঠ জম্মু ও কাশ্মীরেও গরুর মাংস নিষিদ্ধ করা হয়। এবার আসলো সব রাজ্যে পশু জবাই নিষিদ্ধের ঘোষণা।

‘গবাদি পশু হত্যা এবং পরিবহণের উপরে বিধিনিষেধ আরোপ করে রাজ্য সরকারকে চিঠি পাঠায় কেন্দ্র। কুরবানির ঈদে অবাধে গরু, বাছুর, উট এবং অন্যান্য পশু নিধন যেন না হয়, সে জন্য কেন্দ্রীয় প্রাণী কল্যাণ বোর্ড নির্দেশ দিয়েছে।’

গত ৪ জুলাই পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সরকারের মুখ্য সচিব, রাজ্য পুলিশের ডিজি এবং রাজ্য প্রাণীসম্পদ বিভাগের কর্মকর্তাদের চিঠি পাঠিয়েছেন ভারতীয় প্রাণী কল্যাণ বোর্ডের সচিব এম রবিকুমার। কুরবানির ঈদের কথা উল্লেখ করেই চিঠিটি লেখা হয়েছে।

বোর্ডের সচিব লিখেছেন : ‘শুধু পশ্চিমবঙ্গ নয়, সবক’টি রাজ্য সরকারকেই ভারতীয় প্রাণী কল্যাণ বোর্ড এই চিঠি পাঠিয়েছে। রাজ্য সরকারগুলিকে কেন্দ্রীয় বোর্ডের স্পষ্ট নির্দেশ, কোথাও কুরবানির জন্য উট নিধন করতে দেওয়া দেওয়া যাবে না। যে সব রাজ্যে গো-হত্যা রোধ আইন বলবৎ রয়েছে, সেই সব রাজ্যে গরু কুরবানিও চলবে না। কুরবানির ঈদের আগে যারা অবৈধভাবে পশু পরিবহণ করছেন এবং ঈদের দিন যারা আইন ভাঙবেন, তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য রাজ্য সরকারকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। কী ব্যবস্থা সরকার নিল, তাও বিশদে কেন্দ্রীয় বোর্ডকে জানানোর নির্দেশ দেওয়া হয়েছে চিঠিতে।’

 

সূত্র- আনন্দবাজার