বিজিবির নতুন মহাপরিচালক মেজর জেনারেল আবুল হোসেন

BGB DG

মেজর জেনারেল আবুল হোসেনকে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিব) এর নতুন মহাপরিচালক হিসেবে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। প্রেসিডেন্টের আদেশক্রমে জন প্রশাসন মন্ত্রণালয়ের উপসচিব মু. জমিস উদ্দিন খান স্বাক্ষরিত এক প্রজ্ঞাপনে এ তথ্য জানানো হয়। মেজর জেনারেল আবুল হোসেন প্রেসিডেন্টের সামরিক সচিব হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। তিনি মেজর জেনারেল আজিজ আহমেদের স্থলাভিষিক্ত হবেন। প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, মেজর জেনারেল আবুল হোসেনকে বিজিবির মহাপরিচালক পদে প্রেষণে নিয়োগের নিমিত্ত তার চাকরি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে ন্যস্ত করা হলো। মেজর জেনারেল আজিজ আহমেদকে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীতে প্রত্যর্পণ করা হয়েছে বলে প্রজ্ঞাপণে জানানো হয়েছে। এ আদেশ অবিলম্বে কার্যকর করা হবে বলেও উল্লেখ করা হয়।
মেজর জেনারেল আবুল হোসেন, এনডিসি, পিএসসি, ১৯৮০ সালের ১লা ফেব্রুয়ারী বাংলাদেশ মিলিটারী একাডেমিতে যোগদান করে ১৯৮১ সালের ২৭শে ডিসেম্বর বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ইঞ্জিনিয়ারিং কোরে কমিশনপ্রাপ্ত হন। আবুল হোসেন প্রেসিডেন্টের সামরিক সচিব হিসেবে দায়িত্ব নিয়ে বঙ্গভবনে আসার আগে সেনা সদরদপ্তরের ইঞ্জিনিয়ার ইন চিপ এবং মিরপুরে সেনাবাহিনী পরিচালিত মিলিটারী ইনস্টিট্উিট অব সায়েন্স এন্ড টেকনোলজি ও গাজিপুরে বাংলাদেশ সমরাস্ত্র কারখানার কমান্ডেন্টের দায়িত্ব পালন করেন। তিনি ঢাকা সিটি করপোরেশনের প্রধান প্রকৌশলী হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেছেন। আবুল হোসেন কুয়েতে জাতিসংঘ শান্তি মিশনে নেতৃত পর্যায়ে কাজ করেছেন। সেনাবাহিনীর ইঞ্জিনিয়ারিং কোরের এই কর্মকর্তা এর আগেও সেক্টর কমান্ডার হিসেবে বিজিবিতে দায়িত্ব পালন করেছেন। এবার মহাপরিচালক হিসেবে তিনি সীমান্ত ব্যাংকের চেয়ারম্যান হিসেবেও দায়িত্ব পালন করবেন। সম্প্রতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিজিবি কল্যাণ ট্রাস্টের অধীনে এই তফসিলি ব্যাংকের উদ্বোধন করেন। বুয়েট থেকে সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে ডিগ্রি পাওয়া এই সেনা কর্মকর্তা আমেরিকান ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ (এআইইউবি) থেকে ব্যবসায় প্রশাসন ও জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ডিফেন্স স্টাডিজে মাস্টার্স করেছেন। তিনি বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনালস (বিইউপি) থেকে এমফিল পার্ট-১ সমাপ্ত করেছেন। এছাড়া আবুল হোসেন দেশে এবং বিদেশ থেকে বেশ কয়েকটি মিলিটারী কোর্স সম্পন্ন করেছেন। চীন, তুরস্ক ও যুক্তরাজ্যসহ বিভিন্ন দেশে প্রশিক্ষণও নিয়েছেন তিনি।