বিএনপিতে ভয় রোগ ভাইরাসের মতো ছড়িয়ে পড়েছেঃ ওবায়দুল কাদের

 

সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, বিএনপি নিজেদের অস্তিত্ব সমপর্কে সন্দিহান হয়ে পড়েছেন। এ কারণেই বিএনপিতে ভয় রোগ ভাইরাসের মতো ছড়িয়ে পড়েছে।
শনিবার সকাল সাড়ে ১১টায় নীলফামারীতে এক জনসভায় প্রধান অতিথির ভাষণে তিনি এসব কথা বলেন।
মন্ত্রী বলেন, অস্তিত্ত্ব সংকট ও দলের ক্ষতি আর হুমকির জন্য বিএনপিই দায়ী।
বাংলাদেশের আর্থ সামাজিক অবস্থার উন্নতির বিবরণ দিতে গিয়ে এসময় তিনি পাকিস্তানের সঙ্গে তুলনা করে বলেন, পরমাণু বোমা ছাড়া আর্থ-সামাজিক দিক দিয়ে বাংলাদেশ পাকিস্তানের চেয়ে এগিয়ে রয়েছে।
পাকিস্তানের সাথে কুটনীতিক সম্পর্ক বিষয়ে তিনি আলোকপাত করতে গিয়ে বলেন, হঠাৎ করে একটি দেশের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন করা যায় না।
মন্ত্রী আরো বলেন, জননেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ক্ষমতায় আসার পর উত্তরাঞ্চলের মঙ্গাকে যাদুঘরে পাঠিয়েছেন।
শেখ হাসিনার নেতৃত্বে এই সরকার ক্ষমতায় থাকলে আগামীতে দেশের সকল দারিদ্রতাকেও যাদুঘরে পাঠিয়ে দেবে বলে তিনি দাবী করেন।
বেকারদের কর্মসংস্থানের ব্যাবস্থা করা হয়েছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, বেকার যুবক যুবতীদের কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা যেমন করেছে আগামীতে সকলের জন্য কর্মসংস্থান গড়ে তোলে দেয়া হবে। দেশে উন্নয়ন হচ্ছে আরো হবে।
মন্ত্রী দলীয় নেতাকর্মীদের কোনো প্রকার খারাপ আচরণ না করতে নির্দেশ দিয়ে বলেন, এতে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশের সকল উন্নয়ন ও অর্জন ধুলোয় মিশিয়ে যায়।
মন্ত্রী বিএনপির আন্দোলন সম্পর্কে বলেন, আন্দোলন হবে তবে এ বছর নয় ও বছর। তাহলে প্রশ্ন আন্দোলন হবে কোন বছর। তাদের কোনো আন্দোলন মরা গাঙে জোয়ার আনতে পারবেনা। আর এটাই বিএনপি’র অস্তিত্ব ধরে রাখার কৌশল বলে তিনি মনে করেন।
এর আগে, নীলফামারীর ডোমার-ডিমলা সংযোগ সড়কের তিস্তা নদীর উপর সড়ক ও জনপদ অধিদপ্তরের অধীনে ৪ কোটি ৩৭ লাখ ৩৯ হাজার টাকা ব্যয়ে নির্মিত ১০৭ দশমিক ৫৬ মিটার দীর্ঘ খোকশারঘাট সেতু উদ্ধোধন করেন।
এরপর তিনি এক জনসভায় ভাষণ দেন। ডিমলা উপজেলা আওয়ামী লীগের আয়োজনে এবং উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নীলফামারী-১ আসনের সংসদ সদস্য আফতাব উদ্দিন সরকারের সভাপতিত্বে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক মমতাজুল হক, ডিমলা উপজেলা চেয়ারম্যান তবিবুল ইসলাম, ডোমার উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি প্রভাষক খায়রুল আলম বাবুল প্রমুখ।
এর আগে সেতু উদ্ধোধনের সময় মন্ত্রীর সাথে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসক জাকীর হোসেন, পুলিশ সুপার জাকির হোসেন খাঁন, সড়ক ও জনপদ অধিদপ্তরের দিনাজপুর জোনের অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী হাফিজুর রহমান,তত্বাবধায়ক প্রকৌশলী বুলবুল হোসেন, নীলফামারী সড়ক ও জনপদ অধিদপ্তরের নির্বাহী প্রকৌশলী তানভীর সিদ্দিক।