পাহাড়তলী থানার ওসিসহ সাত পুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে মামলা

 

মিথ্যা ইয়াবার মামলায় ফাঁসানোর অভিযোগ এনে চট্টগ্রাম নগরীর পাহাড়তলী থানার ওসি রফিকুল ইসলামসহ সাত পুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা দায়ের করেছেন এক নারী।

৩০ এপ্রিল, সোমবার চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট শাহাদাত হোসাইন ভুইয়ার আদালতে মামলাটি দায়ের করা হয়।

আইনজীবী বাদল দাশ এ তথ্য নিশ্চিত করে জানান, পাহাড়তলী এলাকার বাসিন্দা মেহেরুন্নেসা মামলাটি দায়ের করেন।

অভিযুক্ত পুলিশ সদস্যরা হলেন- পাহাড়তলী থানার এসআই আবু সাঈদ, এএসআই উত্তম ধর, ফজলুল বারি, জিন্তু বড়ুয়া, কনস্টেবল নাজিম উদ্দিন ও মহিউদ্দিন।

বাদীর আইনজীবী বাদল দাশ বলেন, ‘আদালত মামলাটি গ্রহণ করে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনকে (পিবিআই) তদন্তের নির্দেশ ও আগামী ৩০ দিনের মধ্যে প্রতিবেদন দাখিলের আদেশ দিয়েছেন।’

মামলার এজাহারে বলা হয়েছে- গত ২৫ এপ্রিল বাদীর ছেলে মেহেদি হাসান নাঈম (২৫) ও তার বন্ধু তানজিল ইসলামসহ তিন তরুণকে তাদের বাসার সামনে থেকে এসআই আবু সাঈদ তুলে নিয়ে যান। খবর পেয়ে নাঈমের মা থানায় তাদের ধরে আনার বিষয়ে জানতে চাইলে এসআই আবু সাঈদ তার কাছে তিন লাখ টাকা দাবি করেন। টাকা দিলে তাদের ছেড়ে দেওয়া হবে বলে জানান। টাকা দিতে অস্বীকৃতি জানালে পরদিন নাঈমকে ৪০ পিস ইয়াবা এবং তানজিলকে ১২ পিস ইয়াবাসহ গ্রেফতার করা হয়েছে উল্লেখ করে আদালতে পাঠিয়ে দেয়।

জানতে চাইলে পাহাড়তলী থানার ওসি রফিকুল ইসলাম বলেন, ‘মেহেরুন্নেসা নামে ওই নারী তাদের বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ এনেছেন। নাঈম এবং তার বন্ধুকে পুলিশ সদস্যরা ইয়াবাসহ গ্রেফতার করেছে। নাঈমের নামে কোতোয়ালি থানায় মাদকের আরেকটি মামলা রয়েছে। ওই মামলায় ওয়ারেন্টও হয়েছে।’