পরীক্ষার ফি না দেয়ায় ছেলের হাতে বাবা খুন

 

রাজশাহীতে বিএ প্রথম বর্ষ পরীক্ষার ফরম পূরণের টাকা চেয়ে না দেওয়ায় আবু হাসান নামে এক যুবক তার বাবাকে হাসুয়া দিয়ে কুপিয়ে খুন করেছেন। রবিবার তিনি আদালতে হত্যার দায় স্বীকার করে হত্যার কারণ ব্যাখা করেন। গত বছরের ১০ জুন এ হত্যাকাণ্ডটি ঘটে। হাসান আদালতকে জানান, তার বাবা একজন স্বচ্ছল কৃষক। হাসান লেখাপড়া করতে চাইলে তার বাবা পড়াতে রাজি ছিলেন না। সে মায়ের আর্থিক সহযোগিতা নিয়ে এইচএসসি পাস করে সরকারি আজিজুল হক কলেজ বিএ ভর্তি হয়। ১০ জুন ছিল বিএ প্রথম বর্ষ পরীক্ষার ফরম পূরণের শেষ দিন। কোনোভাবে ফরম ফিল-আপের ২৫০০ টাকা সংগ্রহ করতে না পেরে বাবার কাছে হাত পাতে। তার বাবা ৫০ টাকা দিয়ে বিদায় করে। এক পর্যায়ে তার বাবা কৃষিকাজে জমিতে গেলে হাসান বাবার টাকা জমানোর বাক্স খুলে ২৫০০ টাকা নিয়ে কলেজে ফরম ফিলাপ করতে যায়। এদিকে হাসানের বাবা দুপুরে বাড়ি ফিরে দেখে বাক্স খোলা এবং টাকা নেই। বাড়িতে ওই দিন হাসানের বড় বোনও বেড়াতে আসে। হাসানের বাবা বাক্স খোলা দেখে স্ত্রী ও তার মেয়েকে মারধর করে বাড়ি থেকে বের করে দেয়। তার মা পাশ্ববর্তী গ্রামে বাবার বাড়ি গিয়ে ওঠে। এদিকে হাসান কলেজ থেকে বাড়ি ফিরে প্রতিবেশীদের কাছ থেকে ঘটনা জানতে পেরে ক্ষুদ্ধ হয়ে ওঠে। তার বাবা বিকেলে ঘরে ঘুমিয়ে থাকাবস্থায় হাসান হাসুয়া দিয়ে বাবাকে খুন করে। বগুড়ার সিনিয়র সহকার পুলিশ সুপার গাজিউর রহমান বলেন, হাসনকে মামলার তদন্ত করতে গিয়ে হাসানের সম্পৃক্ততার সূত্র ধরে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।