পরিবেশ রক্ষায় বিগত বছরের চেয়ে বরাদ্দ বেড়েছে

২০১৭-২০১৮ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটে পরিবেশ ও বন মন্ত্রণালয়ের জন্য বিগত অর্থ বছরের চেয়ে বরাদ্দ বেড়েছে। পরিবেশ ও বন মন্ত্রণালয়ের জন্য এক হাজার ১২০ কোটি টাকা বরাদ্দের প্রস্তাব করা হয়েছে। যা গত অর্থবছরের চেয়ে ৮৭ কোটি টাকা বেশি।

১ জুন বৃহস্পতিবার, জাতীয় সংসদে ২০১৭-১৮ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেট বক্তৃতায় এ তথ্য দেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। এটি আওয়ামী লীগের নেতৃত্বাধীন সরকারের দ্বিতীয় মেয়াদের চতুর্থ বাজেট।

অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত জানান, ২০১৭-১৮ অর্থবছরে পরিবেশ ও বন মন্ত্রণালয়ের বরাদ্দের ৫৮৫ কোটি উন্নয়ন এবং ৫৩৫ কোটি টাকা অনুন্নয়ন খাতে ব্যয় হবে। সরকারের নিজস্ব অর্থায়নে গঠিত জলবায়ু পরিবর্তন ট্রাস্ট ফান্ডের আওতায় ২০১৬-২০১৭ অর্থবছরে ৪৪টি নতুন এবং দু’টি সংশোধিত প্রকল্প গ্রহণ করা হয়েছে। দীর্ঘ মেয়াদে জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব মোকাবেলায় সমন্বিতভাবে অভিযোজন কৌশল ও করণীয় নির্ধারণকল্পে ন্যাশনাল এডাপটেশন প্ল্যান (এনএপি) প্রণয়নে রোডম্যাপ প্রস্তুত করা হয়েছে। ন্যাশনাল বায়োডাইভারসিটি স্ট্রাটেজি অ্যান্ড অ্যাকশন প্ল্যান অব বাংলাদেশ ২০১৬-২০২১ প্রণয়ন করা হয়েছে।

বাজেট বক্তৃতায় অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘সমগ্র উপকূলজুড়ে সবুজ বেষ্টনী স্থাপনের পরিকল্পনার অংশ হিসেবে ইতোমধ্যে সবুজ বেষ্টনী স্থাপনযোগ্য উপকূলীয় এলাকা চিহ্নিত করা হয়েছে। বঙ্গোপসাগরে এক হাজার ৭৩৮ বর্গ কিলোমিটার এলাকাজুড়ে দেশের একমাত্র ‘মেরিন প্রটেকটেড এরিয়া’ ঘোষণা করা হয়েছে।উপকূলীয় এলাকায় ষাট ও সত্তরের দশকে নির্মিত বেড়ি বাঁধের সংস্কার কাজও শুরু হয়েছে।’