তনু হত্যাকাণ্ড নিয়ে সেনাবাহিনীর প্রেস বিজ্ঞপ্তি

Tonu

সোহাগী জাহান তনুকুমিল্লা ভিক্টোরিয়া কলেজের ছাত্রী সোহাগী জাহান তনু হত্যাকাণ্ডের তদন্ত কাজে স্থানীয় পুলিশকে সর্বাত্মক সহযোগিতা করছে সেনাবাহিনী। শুক্রবার রাতে আইএসপিআর-এর পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ কথা জানানো হয়েছে। এতে বলা হয়েছে, গত ২০ মার্চ রাত আনুমানিক ১১টায় কুমিল্লা সেনানিবাসের সীমানা সংলগ্ন এলাকায় সোহাগী জাহান তনুর অচেতন দেহ খুঁজে পান তার বাবা ইয়ার আলী। যেখানে তনুর লাশ পাওয়া যায় সেখানে কোনও সীমানা প্রাচীর নেই। তনুকে খুঁজে পেয়ে বাবা ইয়ার আলী মিলিটারি পুলিশকে খবর দেন। তাৎক্ষণিকভাবে সোহাগীকে সিএমএইচ-এ নেওয়া হলে সেখানকার কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। পরবর্তীতে পুলিশ তার পোস্টমর্টেম কার্যক্রম সম্পন্ন করে। সোহাগী হত্যার কারণ উদঘাটনের জন্য ইতোমধ্যে কার্যক্রম শুরু হয়েছে। এ কাজে পুলিশ প্রশাসনকে সর্বাত্মক সহযোগিতা প্রদান করছে সেনাবাহিনী।