চট্টগ্রাম সহ দেশের চার সমুদ্র বন্দরকে তিন নম্বর সতর্ক সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে

স্কুলে বিয়ে অনুষ্ঠানের অনুমতি না দেওয়ায় প্রধান শিক্ষককে প্রাণনাশের হুমকি, যুবদল নেতা গ্রেপ্তার

Chittagong

উত্তর বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন উপকূলীয় এলাকায় অবস্থানরত লঘুচাপটি নিম্নচাপে পরিণত হওয়ায় দেশের সমুদ্রবন্দরগুলোকে তিন নম্বর সতর্কতা সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।

আবহাওয়া অধিদপ্তরের আজ সোমবার সকাল ছয়টায় দেওয়া বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, লঘুচাপটি মৌসুমি নিম্নচাপে পরিণত হওয়ায় নিম্নচাপ কেন্দ্রের কাছে সাগর মাঝারি ধরনের উত্তাল রয়েছে। এতে চট্টগ্রাম, মংলা ও পায়রা সমুদ্রবন্দর এবং কক্সবাজারকে তিন নম্বর স্থানীয় সতর্কতা সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে। নিম্নচাপটি আজ সকাল ছয়টায় চট্টগ্রাম সমুদ্রবন্দর থেকে ১৮০ কিলোমিটার পশ্চিম-দক্ষিণ পশ্চিমে, কক্সবাজার থেকে ২০০ কিলোমিটার পশ্চিম-উত্তর পশ্চিমে, মংলা সমুদ্রবন্দর থেকে ৭৫ কিলোমিটার দক্ষিণ-পূর্বে ও পায়রা সমুদ্রবন্দর থেকে ১০ কিলোমিটার পূর্বে অবস্থান করছিল।

বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, নিম্নচাপটি আরও ঘনীভূত হতে পারে। নিম্নচাপ কেন্দ্রের ৪৪ কিলোমিটারের মধ্যে বাতাসের একটানা সর্বোচ্চ গতিবেগ ঘণ্টায় ৪০ কিলোমিটার, যা দমকা অথবা ঝোড়ো হাওয়ার আকারে ৫০ কিলোমিটার পর্যন্ত বৃদ্ধি পাচ্ছে। উত্তর বঙ্গোপসাগরে অবস্থানরত মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারকে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত উপকূলের কাছাকাছি থেকে সাবধানে চলাচল করতে বলা হয়েছে।

আবহাওয়া অধিদপ্তরের পটুয়াখালীর কলাপাড়া স্টেশনের ইনচার্জ প্রদীপ কুমার চক্রবর্তী আজ দুপুরে প্রথম আলোকে বলেন, ‘সাগর মাঝারি ধরনের উত্তাল রয়েছে। এর প্রভাবে ঝোড়ো হাওয়া ও বৃষ্টিপাত হতে পারে।’

নিম্নচাপের প্রভাবে গতকাল রোববার সন্ধ্যা ছয়টা থেকে বরগুনায় বিভিন্ন রুটে চলাচলকারী ছোট ছোট নৌযান চলাচল বন্ধ রাখা হয়েছে। বরগুনা নৌ বন্দরের বন্দর কর্মকর্তা মামুন অর রশিদ বলেন, ছোট ছোট লঞ্চ চলাচল করছে না এবং বিভিন্ন নদীতে খেয়া পারাপারও বন্ধ রাখতে বলা হয়েছে।

জেলা মৎস্যজীবী ট্রলার মালিক সমিতির সভাপতি গোলাম মোস্তফা চৌধুরী বলেন, ‘আমরা বঙ্গোপসাগরে মাছ ধরার ট্রলারগুলোকে নিরাপদে থাকার কথা বলেছি। কিছু ট্রলার উপকূলের দিকে এসেছে। এখনো অনেক ট্রলার নিরাপদ জায়গায় ফেরেনি।’সূত্র- প্রথমআলো