পাহাড়তলী থানা এলাকায় ছুরিকাঘাতে ১ ব্যক্তি নিহত, আটক ৪

চট্টগ্রাম মহানগরীতে করোনা আক্রান্ত ৭ জনের মধ্যে পাহাড়তলীতেই ৩ জন

 

মুহাম্মদ সাইফুল ইসলামঃ  বিশ্ব মহামারী করোনা ছোবলে থেকে বাদ নেই চট্টগ্রামও। এখন পর্যন্ত চট্টগ্রাম বিভাগে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ১০ জন এবং মৃত্যু হয়েছে একজনের।

এরমধ্যে চট্টগ্রাম মহানগরীতে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৭ জন। তারমধ্য পাহাড়তলীতে বসবাস করেন ৩ জন এবং পাহাড়তলী থানাধীন জোলার হাট এলাকার ১ জন তরকারি ব্যবসায়ী রয়েছেন তার বাসা আকবরশাহ থানাধীন গোল পহাড় এলাকায়। যদিও তিনি আকবরশাহ এলাকায় বাসিন্দা তারপরেও কর্মক্ষেত্র ও ওয়ার্ড হিসেব করলে পাহাড়তলীর বাইরে নয়। এছাড়াও নগরীর দামপাড়া এলাকায় ২ জন ও ফিরিংগি বাজার  ১ জনসহ সর্বমোট ৭ জন।

নগরীর বাইরে বাদ বাকি ৩ জনের মধ্যে ১ জন সীতাকুন্ড,  ১ জন লক্ষ্যিপুর আর ১ জন সাতকানিয়া থেকে অসুস্থ অবস্থায়  এসে বা নির্ধারিত সাস্থ্য কেন্দ্রে নমুনা পাঠিয়ে করোনা সনাক্ত হয়েছেন।

এখন প্রশ্ন হচ্ছে নগরীর আক্রান্ত ৭ জনের মধ্যে পাহাড়তলীতে ৩ জন কেন ?

এই ৪ জন কিভাবে আক্রান্ত হয়েছেন এবং তারা কতজনকে সংক্রমিত করেছেন তার হিসেবেও এখন পর্যন্ত অজানা। এই নিয়ে স্থানীয় লোকজন প্রায় আতংকিত।

১১ এপ্রিল শনিবার সিডিএ মার্কেট পাহাড়তলী থানা রোড এলাকায় যিনি আক্রান্ত হয়েছেন তিনি কদিন আগে অসুস্থ বোধ করলে ফোন করেও ডাক্তারের দেখা পাননি। পরবর্তীতে তিনি নিজ উদ্যোগে ফৌজদারহাটে গিয়ে তার নমুনা জমা দিয়ে আসেন এবং তার একদিন পর তিনি জানতে পারেন তিনি করোনায় আক্রান্ত। এরমধ্যে তিনি এলাকায় বিভিন্ন ব্যক্তিদের সাথে চলাফেরা করেছেন, বাজারে গিয়েছেন, মসজিদে গিয়েছেন, স্থানীয় দোকানেও গিয়েছেন পান খাওয়ার জন্য । সবমিলিয়ে ঐ এলাকার কি অবস্থা হবে বা হতে যাচ্ছে তা বলা যাচ্ছেনা। দায়িত্বপ্রাপ্ত লোকজন শুধুমাত্র ৫/৬ টি বাড়িতে লকডাউন দিয়ে আপাতত তাদের কার্যক্রম শুরু করেছেন। অন্যদিকে জোলার হাট বাজারের তরকারি ব্যবসায়ীর ঘটনাও প্রায় একই।

এ বিষয়ে পাহাড়তলী থানার ওসি মাইনুর রহমানের সাথে কথা বললে তিনি কর্ণফুলী নিউজকে বলেন, “আমরা এই ভাইরাস সনাক্তের পরপরই প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিচ্ছি, এখন পর্যন্ত যেখানে লকডাউন করেছি সেখানে রাতদিন পাহারায় রাখছি এবং আমাদের পুলিশ সেখানে কাজ করছে। এছাড়া আমরা জোলার হাট বাজার লকডাউন করে দিয়েছি। তিনি আরো বলেন করোনা আক্রান্ত রোগীদের আমরা জিজ্ঞেস করছি তিনি কোথায় গিয়েছিলেন কাদের সাথে চলাফেরা করেছেন সে ব্যপারে আমরা ব্যবস্থা নেওয়ার চেষ্টা করে যাচ্ছি আর বাকিটা জেলা প্রশাসন দেখভাল করছে ”  তিনি আরও বলেন “দেখুন, আমরা কিন্তু কাজ করে যাচ্ছি যাতে সবাই নিরাপদ থাকে ”

 

Karnaphuli News