‘গণধর্ষণের হুমকি ও এটিএম কার্ড ছিনতাইয়ে জড়িতরা ছাত্রলীগের কর্মী

IMG_20150901_221809_203

রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যান বেড়াতে আসা এক যুবকের বান্ধবীকে গণধর্ষণের হুমকি দিয়ে এটিএম কার্ড ছিনিয়ে নিয়ে একাউন্ট থেকে টাকা তুলে নেয়ার অভিযোগে দুজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গোয়েন্দা পুলিশের যুগ্ম কমিশনার জানান, এদের একজন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের এবং একজন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী। বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশিত খবরে জানা যায় এরা ছাত্রলীগের নেতাকর্মী।


১৭ই আগস্ট সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে বান্ধবীকে নিয়ে বেড়াতে যান এক যুবক। পরে উদ্যান থেকে বের হওয়ার সময় টিএসসি এলাকায় তাদেরকে ঘিরে ফেলেন কয়েক যুবক। দুজনকে টেনে হিঁচড়ে আলাদা করে ছিনিয়ে নেয় এটিএম কার্ড। এরপর বান্ধবীকে গণধর্ষণের ভয় দেখিয়ে কার্ডের পিনকোড জেনে নিয়ে টিএসসির এটিমএম বুথ থেকে তুলে নেয় ৫০ হাজার টাকা। সোমবার টিএসসি এলাকায় ছিনতাইকারীদের দেখতে পেয়ে পুলিশে খবর দেন ভুক্তভোগী ব্যক্তি। 

পরে পুলিশ এসে তাদের গ্রেফতার করে। বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশিত খবরে জানা যায় এদের একজন রাজিব বাড়ৈ জগন্নাথ হল শাখা ছাত্রলীগের সহ সভাপতি। অপরজন অমিত কুমার দাস জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সহ সম্পাদক।

এ সম্পর্কে ডিএমপির যুগ্ম কমিশনার মনিরুল ইসলাম বলেন, ‘গ্রেফতারকৃত দুজন ছাত্রলীগের সদস্য। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তারা তাদের অপরাধ স্বীকার করেছে। এছাড়া এসব ঘটনায় পিছনে আরও যারা আছেন তাদের খুঁজে বের করার চেষ্টা চলছে।’ 

গোয়েন্দা কর্মকর্তা আরো জানান, বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় বিভিন্ন সময় ছিনতাইয়ের যে অভিযোগ পাওয়া যায় তার সঙ্গে কারা জড়িত তাও খতিয়ে দেখছেন তারা।

সোহরাওয়ার্দী উদ্যান এলাকায় ছিনতাইসহ বিভিন্ন অপরাধ বেড়ে যাওয়ায় এ এলাকায় নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে বলেও জানান তিনি।