করোনা সংক্রমণের ভয়াবহ পরিস্থিতি সামনে অপেক্ষা করছেঃ বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা

 

বিশ্বজুড়ে এক কোটির বেশি মানুষের শরীরে নভেল করোনাভাইরাসের সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে।

প্রাণ হারিয়েছেন পাঁচ লক্ষাধিক মানুষ। তবে এতেই থামছে না এ মহামারী। এর অবসান ‘এখনো বহু দূরের পথ’ বলে মন্তব্য করেছেন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) প্রধান টেড্রোস আধানম গেব্রেইয়েসুস।

গতকাল ২৯ জুন, সোমবার এক ব্রিফিংয়ে প্রাণঘাতী এ ভাইরাসের সংক্রমণ আরো ব্যাপক আকারে ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন বলে এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে বিবিসি।

তিনি বলেন, ‘কিছু কিছু দেশে করোনা মহামারী নিয়ন্ত্রণে আসলেও বেশিরভাগ দেশেই এখনো করোনা সংক্রমণ ঊর্ধ্বমুখী।’

সতর্ক করে দিয়ে তিনি আরো জানান, এর সংক্রমণের ভয়াবহ পরিস্থিতি সামনে অপেক্ষা করছে।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রধান বলেন, ‘এই রকম পরিবেশ ও অবস্থা চলতে থাকলে, আমরা সেই ভয়াবহ পরিস্থিতির আশঙ্কা করছি।‘

তিনি জানান, মাত্র ছয় মাসে বিশ্বে করোনায় সংক্রমণের সংখ্যা এক কোটি ছাড়িয়েছে এবং মৃতের সংখ্যা পাঁচ লাখেরও বেশি।

বেশিরভাগ মানুষ ঝুঁকিতে থাকায় ভাইরাসটির সংক্রমণ এখনো আরো বড় পরিসরে ছড়িয়ে যাওয়ার আশঙ্কা আছে বলেও জানান গেব্রেইয়েসুস।

গত বছরের ডিসেম্বরের শেষ দিকে চীনের হুবেই প্রদেশের রাজধানী উহানে প্রথম নিউমোনিয়ার মতো একটি রহস্যজনক ভাইরাসে আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়।

এরপর সেই দেশের অন্যান্য স্থানে ছড়িয়ে পড়তে থাকে। কিছুদিন পর এই ভাইরাসকে নভেল করোনাভাইরাস বা কোভিড-১৯ হিসেবে শনাক্ত করেন চিকিৎসাবিজ্ঞানীরা।

অল্প কিছুদিনের মধ্যেই চীনের সীমানা ছাড়িয়ে বিশ্বের অন্যান্য দেশে এর প্রাদুর্ভাব শুরু হয়। মার্চের ১১ তারিখে এই সংকটকে বৈশ্বিক মহামারী হিসেবে ঘোষণা করে ডব্লিউএইচও।

নভেল করোনাভাইরাসের সংক্রমণের ছয় মাস পার হতে চললেও এর প্রকোপ কমছে না।

সময় গড়ানোর  সাথেসাথে ভাইরাসটির ভয়াবহ দিকও বেরিয়ে আসছে।

 

Do NOT follow this link or you will be banned from the site!