আসল বিএনপি’র গাড়ি পুড়িয়ে দিয়েছে ছাত্রদল

2016_01_17

নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে ‘জাতীয়তাবাদী জনতার উচ্চ আদালত’ বসাতে যাওয়া ‘আসল বিএনপি’র একটি পিকআপ ভ্যান পুড়িয়ে দিয়েছেন ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা। রোববার বিকেল পৌনে ৪টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। ‘আসল বিএনপি’র মুখপাত্র দাবিদার কামরুল হাসান নাসিমের লোকজন একটি পিকআপ ভ্যান নিয়ে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে ‘জাতীয়তাবাদী জনতার উচ্চ আদালত’ বসাতে গেলে এ ঘটনা ঘটে। পিকআপটিতে তিনটি সাউন্ড বক্স ছিল, সেগুলোও পুড়ে গেছে। পিকআপটি আনন্দ ভবন কমিউনিটি সেন্টারের সামনে পৌঁছালে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয় থেকে লাঠিসোটা হাতে ছুটে আসেন ছাত্রদল নেতাকর্মীরা। পিকআপটিতে ভাঙচুর চালিয়ে তারা আগুনও ধরিয়ে দেন তাতে। এসময় রাস্তার লোকজনের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। লোকজন ভয়ে ছোটাছুটি করতে শুরু করেন। গাড়িগুলোও হর্ন বাজিয়ে এলোমেলো ভাবে চলতে থাকে। ইজতেমা ফেরত মুসল্লীদের নিয়ে বলাকা পরিবহনের একটি বাস কোনো উপায় না দেখে কাকরাইলের স্কাউট ভবনের প্রাঙ্গণে ঢুকে পড়ে। পল্টন থানার ওসি মোর্শেদ জানান, দুর্বৃত্তরা ‘আসল বিএনপি’র একটি গাড়ি পুড়িয়ে দিয়েছে। এ ঘটনায় কেউ আটক হননি। এরআগে, গত ২ জানুয়ারি বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে ‘জাতীয়তাবাদী জনতার উচ্চ আদালত’ বসানোর লক্ষ্যে কামরুল হাসান নাসিমের অনুসারীরা সেখানে যান। তবে ‘নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয় দখল হয়ে যাবে’- এমন আশঙ্কায় ওইদিন সকাল থেকেই কার্যালয়ের সামনে পাহারা বসায় দলটির সহযোগী সংগঠন জাতীয়তাবাদী ছাত্রদল। ফলে নাসিমের অনুসারীরা পল্টন থানার সামনে দিয়ে জাতীয় পতাকা হাতে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে গেলে ছাত্রদলের নেতা-কর্মীদের তাড়া খেয়ে পিছু হটে যায়। তবে নাসিম নিজে ওই কর্মসূচিতে হাজির ছিলেন না। তিনি পল্টন থানার সামনে অবস্থান করছিলেন।